ভারতে 'পাবজি ইন্ডিয়া' নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়ে মোদিকে চিঠি




অবশেষে ভারতে পাবজি ইন্ডিয়া গেম শুরু হওয়ায় গেমারদের মুখে চওড়া হাসি ফুটেছে। কিন্তু এ হাসি কি কান্নায় পরিণত হবে? সম্প্রতি অরুণাচল প্রদেশের বিধায়ক পাবজি ইন্ডিয়া গেমটি ক নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সরাসরি চিঠি দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীকে সেই চিঠিটি পাঠিয়ে সেই চিঠির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছেন অরুণাচলের বিধায়ক নিনং ইরিং। তিনি তার চিঠিতে উল্লেখ করেছেন, পাপজির সঙ্গে গেমটির সামঞ্জস্য রয়েছে তাই ইউজারদের নিরাপত্তা নিয়ে অনেকটাই প্রশ্ন দেখা দিচ্ছে। আমাদের দেশের ব্যক্তিগত তথ্য অন্য দেশের কাছে চলে যাক এটা কোনোভাবেই কাম্য নয়। তাই তিনি গেমটি নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে।

গত বছর প্রধানমন্ত্রী চীনের উপর ডিজিটাল স্ট্রাইক এর কারণে এদেশে বন্ধ হয়েছিল পাবজি। গেমটির প্রস্তুতকারক দক্ষিণ কোরিয়ার সংস্থা হলেও এর সঙ্গে চীনা সংস্থারও যোগ ছিল। তার ফলেই নিষিদ্ধ করা হয়েছিল পাবজি কে। যদিও পরবর্তীতে চিনা সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছেদ করে ক্রাফটন। পরবর্তীতে ভারতের বাজারে নাম বদল করে আত্মপ্রকাশ ঘটে পাবজি গেমটির।

বিধায়ক চিঠিতে আরও দাবি করেছেন যে, ক্রাফটন এর সঙ্গে চিনা সংস্থা টেনসেন্ট এর এখনো যোগাযোগ রয়েছে। পাবজি ইন্ডিয়া গুগল প্লে স্টোরে যে URL দিয়ে রয়েছে সেটি পাবজি মোবাইলের URL ছিল। অর্থাৎ পুরনো পাবজি আবার নতুন মোড়কে যে ফিরেছে তা নিয়ে তার কোনো সন্দেহ নেই। ফলে যে উদ্দেশ্যে পাবজি নিষিদ্ধ করা হয়েছিল সেই উদ্দেশ্য সাধন হবে না বলে জানিয়েছেন নিনং।

অন্ধ্রপ্রদেশের দুটি হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট বসাচ্ছেন অভিনেতা সনু সুদ




করোনা মহামারীতে নিজেকে বারংবার রিয়েল লাইফ হিরো হিসেবে প্রমাণ করেছেন সনু সুদ। এবার তিনি জনসাধারণের সমস্যা মেটাতে আরো একটি উদ্যোগ নিতে চলেছেন। অন্ধ্রপ্রদেশের দুটি হাসপাতলে অক্সিজেন প্লান্ট বসাতে চলেছেন অভিনেতা সনু সুদ।

গতবছর লকডাউন থেকেই তিনি মানুষের জন্য অবিরাম কাজ করে চলেছেন। গরিব পরিবারের চিকিৎসার ব্যবস্থা থেকে শুরু করে পরিযায়ী শ্রমিক দের ঘরে ফেরার বন্দোবস্ত করে দিয়েছেন তিনি। রাজনীতি না করেও যে মানবসবা করা যায় তা তিনি প্রকৃত দৃষ্টান্ত দেখিয়েছেন অভিনেতা সনু সুদ। তিনি নিজেও করণা আক্রান্ত হয়েছিলেন কিন্তু তার মধ্যেও তিনি জনসেবার কাজে থেমে পড়েননি। এবার তিনি অক্সিজেন প্লান্ট বসানোর এক অভিনব উদ্যোগ গ্রহণ করলেন। অন্ধ্রপ্রদেশের কুর্ণুলের সরকারি ও জেলা হাসপাতালে অক্সিজেন প্লান্ট বসানোর কাজ শুরু হয়েছে। তিনি আরো জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে রাজ্যের বিভিন্ন গ্রামীণ এলাকাতেও অক্সিজেন প্লান্ট বসানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

সম্প্রতি বলিউড অভিনেতা সনু সুদ টুইটারে জানিয়েছিলেন, "100 কোটির সুপারহিট ছবির অংশ হওয়ার থেকে সমাজ মূলক কাজে জড়িয়ে থাকা অনেক অনেক বেশি আনন্দের"। হাসপাতলে রোগীর বেডের ব্যবস্থা করা বয়স্ক ব্যক্তিদের ঔষধের যোগান করে দেওয়া সমস্ত টাই নিরলসভাবে করে চলেছেন বলিউড অভিনেতা। সাধারণ মানুষ তার কাছে কোন সাহায্য চাইলে তিনি কাউকেই ফিরিয়ে দেন না। সকলকেই অবিরাম সাহায্য করে চলেছেন।

দর্শকের মন জয় করতে পারলোনা সালমান খানের 'রাধে'



রাধে ছবি মুক্তির আগেই সালমান খানের ভক্তদের উত্তেজনা ছিল অনেকটাই। কিন্তু রাধে ছবি মুক্তি পাওয়ার পরেই শুধু সমালোচনায় হয়েছে সেই ছবি নিয়ে। দর্শকের মনে জায়গা করে নিতে পারেনি সালমান খান। তবে প্রথম বলিউড সিনেমা হিসেবে এক অনন্য নজির ঘটতে চলেছে সালমান খানের ছবি রাধে।
করোনা মহামারীতে বন্ধ রয়েছে দেশের সমস্ত সিনেমা হল গুলি। ফলেই ডিজিটাল প্লাটফর্ম গুলিতেই রিলিজ হয়েছিল রাধে। ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম সাবস্ক্রাইবের মাধ্যমেই ছবিটি দেখে নেওয়া হচ্ছে। এয়ারটেল গ্রাহকরা আবার টিভিতেও ছবিটি দেখার সুযোগ পাচ্ছেন। এছাড়াও কানাডা ডেনমার্ক বেলজিয়াম ফিজি মালয়েশিয়া শ্রীলংকা আফ্রিকা সহ বিভিন্ন দেশের দর্শক এই ছবিটি দেখে নিতে পারবেন অ্যাপেল টিভির মাধ্যমে। শোনা গিয়েছে, এই প্রথম কোন বলিউড ছবি অ্যাপেল টিভিতে দেখানো হচ্ছে।

বলিউডে প্রথম ছবি হলেও দর্শকদের আশা পূরণ করতে ব্যর্থ হচ্ছে রাধে। প্রায় এক সপ্তাহ পার হয়ে গেলেও ছবিটি থেকে সেরকম আয় হয়নি। ছবিটি সিনেমা হলে মুক্তি না পাওয়ার পাশাপাশি পাইরেসি অন্যতম কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই নিয়ে সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় হুমকি দিয়েছিলেন সালমান খান। সতর্ক করে জানিয়েছিলেন অন্যান্য ওয়েব সাইট থেকে রাধে সিনেমাটি ডাউনলোড করে দেখলে বিপদ হতে পারে। তিন জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে পাইরেসির অভিযোগে।

পুত্র সন্তানের জন্ম দিলেন গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল

করণা অতিমাড়ির মধ্যেই সুখবর জানালেন গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল। মা হলেন গায়িকা। গত শনিবার পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়েছেন শ্রেয়া। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জানিয়েছেন এ কথা।

প্রথমে টুইটার এবং পরে ইনস্টাগ্রামে ছবি শেয়ারের মাধ্যমে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার কথা জানিয়েছিলেন গত মার্চ মাসেই শ্রেয়া। তিনি একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। সেই ছবিতে বেবি বাম্প ছুঁয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছিল শ্রেয়াকে। ছবির ক্যাপশনে লিখেছিলেন, "পরিবারে নতুন অতিথি আসছে। শিলাদিত্য এবং আমি আপনাদের জানাতে পেরে এই খবর খুবই খুশি। জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু করতে আপনাদের ভালবাসা এবং আশীর্বাদ প্রয়োজন।" পরবর্তীতে তিনি তার সাধ খাবার ছবিও পোস্ট করেন।

শনিবার দুপুরে পুত্র সন্তান জন্মানোর পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সুখবর দিয়ে শ্রেয়া লেখেন, "ঈশ্বরের আশীর্বাদে আজ পুত্র সন্তান পেয়েছি। এই আবেগ আমি আগে কোনদিনও অনুভব করতে পারিনি। শিলাদিত্য, আমি এবং আমার পরিবার আজ আনন্দে উচ্ছ্বসিত। আমাদের এই ছোট মানুষটিকে অসংখ্য আশীর্বাদে ভরে দেওয়ার জন্য সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ।"

উল্লেখ্য, এই বছরের শুরুতেই একটি কন্যা সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা। পরবর্তীতে কারিনা কাপুর ও মা হয়েছেন। এবার শ্রেয়া ঘোষালের পুত্র সন্তানের জন্ম হওয়ার খবর শুনে খুশিতে তার অনুগামীরা। শ্রেয়া এবং তার পুত্র সন্তানের সুস্থতা কামনা করেছেন সকলেই। মা এবং সন্তান দুজনেই সুস্থ আছেন এখন।